আশার আলো

০১।    সংস্থার সংক্ষিপ্ত বর্ণনা/পটভূমি ঃ আশার আলো একটি বেসরকারী উন্নয়নমূলক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুান্দয়া উপজেলাধীন কুমারপুর গ্রামের বিশিষ্ট সমাজসেবী মোঃ খায়রুল ইসলাম তার প্রচেষ্টায় আশার আলো সংস্থাকে মানব জাতির কল্যাণের উদ্দেশ্যে এবং তাদের আশা আকাংখাকে বাস্তবে কাজে লাগিয়ে আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন, দারিদ্রতা, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা রোধ, নারীর ক্ষমতায়ন, সুশাসন, মানবাধিকার, মনিটরিং ও মূল্যায়নকরণ, প্রতিবন্ধীদের সহায়তাকরণ, স্যানিটেশন, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ, পরিবেশ এর সংস্কৃতি বিকাশে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদানের লক্ষ্যে আশার আলো’র অগ্রযাত্রা শুরু হয়।

০২।    সংস্থার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য ঃ আশার আলো একটি অরাজনৈতিক, বেসরকারী উন্নয়নমুলক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। এই সংস্থা, সমাজ, পরিবেশ এবং সামাজিক বিভিন্ন কল্যাণমূলক কাজ তথা বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে সরকারের পাশাপাশি জড়িত থেকে বে-সরকারীভাবে সেবার কাজ চালিয়ে যাবে। এই সংস্থার উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য হচ্ছে নিম্নরূপ ঃ
    (ক) সমাজ কল্যালমুলক বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক কার্যক্রমসহ জনগণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধিকরণ ও উদ্বুদ্ধকরণ।
    (খ) দরিদ্র জনগণকে সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন কর্মে সংগঠনের মাধ্যমে একত্রীকরণ।
    (গ) প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাকরণ।
    (ঘ) আয় বৃদ্ধিমূলক কর্মকান্ডে আর্থিকভাবে সহায়তা প্রদান করা।
    (ঙ) বিভিন্ন দিবস সমূহ পালন করা।
    (চ) পরিবেশ সংরক্ষণ ও বনায়ন করা।
    (ছ) দুস্থ প্রতিবন্ধী মানুষদেরকে পূনর্বাসন করা।
    (জ) সাপ্তাহিক সঞ্চয়ের মাধ্যমে নিজস্ব মূলধন গঠনে প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখা।
    (ঝ) সার্বজনীন শিক্ষা কর্মসূচী চালু করা।
    (ঞ) বিশুদ্ধ পানি ও স্বাস্থ্য সম্মত পায়খানা ব্যবহারের জন্য কর্মসূচী নিশ্চিতকরণ।
    (ট) মানবাধিকার ও সামাজিক ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করা ও সুশাসনের জন্য কাজ করা।
    (ঠ) দুর্যোগ প্রস্তুতি ও মোকাবিলায় সহায়তা প্রদান করা।
    (ড) চিকিৎসা, খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা কর্মসূচী গ্রহণ করা।
    (ঢ) মনিটরিং, পর্যবেক্ষন ও মূল্যায়নকরণ এবং সার্ভেকরণ।
    (ণ) সরকারী, বেসরকারী বা বিভিন্ন দাতা সংস্থা/প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে বা সহযোগীতায় দেশের প্রাকৃতিক বিপর্যয়, দুর্যোগ,
            মহামারী মোকাবেলায় জনসাধারণকে সাহায্য সহযোগিতা প্রদানে এগিয়ে আসা।